এবার খাদ্য বর্জ্য থেকেই তৈরি হবে পরিবেশ বান্ধব সিমেন্ট

after process cement

এবার আকাশ ছোয়া দালান তৈরি করা যাবে মানুষের খাদ্য বর্জ্য থেকে তৈরি করা সিমেন্ট দিয়ে যা পরিবেশ বান্ধব। সাধারন সিমেন্ট থেকে সবছেয়ে বেশি নির্গত হয় পরিবেশের ক্ষতিকারক পদার্থ কার্বন ডাই অক্সাইড। জাপানের একদল বিজ্ঞানী এই চিন্তা থেকেই তাদের মাথাই চলে আসল এই আবিস্কার। যদি খাদ্য বর্জ্য থেকেই আমাদের দালান তৈরির অত্যন্ত প্রয়োজনীয় উপাদান সিমেন্ট তৈরি করা যায় তাহলে কেমন হয় যা বলা তাই কাজ। তারা খাদ্য বর্জ্য থেকে সিমেন্ট তৈরি করে দেখাল যা পরিবেশের কোন ক্ষতি করেনা এবং যা থেকে কোন কার্বন ডাই অক্সাইড তৈরি হয়না। সাধারন সিমেন্টের সবছেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে এটি পরিবেশে সবছেয়ে বেশি পরিমান কার্বন ডাই অক্সাইড নির্গমন করে।

চুনাপাথর সংগ্রহ যা দিয়ে সিমেন্ট তৈরি হয়

আবার এই সিমেন্ট তৈরিতে যে কাচামাল ব্যবহার হয় তা পাওয়া ও দুঃসাধ্য হয়ে যাচ্ছে। জাপানে প্লাস্টিক এবং ফ্যাশন বর্জ্যের মত খাদ্য বর্জ্য ও এক বিশাল সমস্যা হয়ে দাড়িয়েছে। ২০১৯ সালে এক সমীক্ষায় দেখা গেছে দেশটিতে প্রায় ৫ কোটি ৭০লাখ টন খাদ্য বর্জ্য তৈরি হয় যা দিয়ে বিশাল পরিমান প্রাকৃতিক সিমেন্ট উতপাদন করা সম্ভব যা পরিবেশের কো ক্ষতি করবেনা। তাই খাদ্য বর্জ্যের পুন ব্যবহার এই সমস্যার অনেকটাই সমাধান দেবে আশা করেন এই দলের বিজ্ঞানীরা। বিশ্বের ৮% শতাংশ কার্বন ডাই অক্সাইড উৎপন্ন হয় এই সিমেন্ট থেকে। যদি খাদ্য বর্জ্য থেকে সিমেন্ট তৈরি হয় তাহলে এই সমস্যার অনেকটাই সমাধান হবে বলে মনে করেন এই গবেষকরা।

সবজির বর্জ্য থেকে সিমেন্ট বানানোর জন্য

কিভাবে তৈরি হল এই সিমেন্ট ?

জাপানের টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক যারা ইট পাতরের দেওয়াল নিয়ে চিন্তা করছিল। তাদের ভাবনাই ছিল কিভাবে পরিবেশের ক্ষতি করে এমন কিছু দিয়ে বড় দালান তৈরি করা যায়। খাদ্য বর্জ্য দিয়ে খাদ্য বর্জ্য শুকিয়ে তার মধ্যে এক ধরনের কেমিকেল মিশিয়ে তা শুকিয়ে একেবারে পাউডার বানিয়ে সেখান থেকে পরিবেশ বান্ধব সিমেন্ট তৈরি করেন। তারা বলেন পৃথিবীতে যে পরিমান খাদ্য বর্জ্য তৈরি হয় তা দিয়ে সিমেন্ট উৎপাদন করলে বেশির মোট চাহিদার বেশির ভাগ এখান থেকেই উতপন্ন করা সম্ভব।

সবজি থেকে তৈরি সিমেন্ট

নতুন এই প্রযুক্তিতে খাদ্য বর্জ্যের সাথে সিমেন্ট তৈরিতে প্লাস্টিক মেশানোর কোন প্রয়োজন নেই। খাদ্য বর্জ্য গুলোকে প্রথমে শুকিয়ে তারপর ছোট ছোট কনায় রুপান্তর করা হয়। এরপর নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় এগুলোকে সিমেন্টের আকার দেওয়া হয়। এই তিনটি ধাপ সম্পন্ন করে পরিবেশ বান্ধব সিমেন্ট তৈরি হয়। প্রাথমিক ভাবে তারা এসব সিমেন্ট তৈরিতে লেবুর খোসা, কমলার খোসা, ফেলে দেওয়া চা পাতা এমন কি লাঞ্চ বক্সের অবশিষ্ট খাবার কে ব্যবহার করেন। সফল ভাবে এগুলো থেকে সিমেন্ট তৈরি করতে সমর্থ হন।

কেন এই সিমেন্ট ?

বিশ্ব ব্যাপি যে হারে দালান কোটা তৈরি হয় তার বেশির ভাগই ব্যবহার হয় সিমেন্ট। এই সিমেন্ট তৈরির অন্যতম কাচামাল হিসাবে ব্যবহার হয় নুড়ি পাথর যা পাওয়া দিন দিন অনেক কষ্টকর হয়ে যাচ্ছে। আবার এই সিমেন্ট তৈরিতে পরিবেশের ভীষন ক্ষতি হয় এবং প্রচুর কার্বন ডাই অক্সাইড নির্গগ করে। তাই এই সিমেন্টের বিপরীতে যদি এই খাদ্য বর্জ্য দিয়ে সিমেন্ট তৈরি করা যায় তবে তা আমাদের একদিকে দেবে বিশাল খাদ্য বর্জ্যের সমাধান এবং চুনাপাথর এর ব্যবহার অনেক কমে আসবে। পরিবেশ বান্ধব এই সিমেন্ট দিয়ে সুউচ্চ ভবন ও নির্দিদায় বানানো যাবে পরিবেশের কোন ক্ষতি না করে।

আর ও পড়ুনঃ যে কারনে স্মার্টফোন কোম্পানীগুলো প্রসেসর তৈরি করতে পারেনা

+

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Shares